সানস্ক্রিন এর জাদু

কনকনে শীতে নরম রোদের ছোয়া অথবা ফুলেল বসন্তের
মিষ্টি সূর্যের হাসি কার না প্রিয়!
কিন্তু এই সূর্য রশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব অনেক গুরুতর হতে পারে।
আমাদের স্কিন র যত্নে আমরা অনেক কিছু ব্যাবহার করি।
বেশির ভাগই বুঝে না বুঝে।
স্কিন বা ত্বকের যত্ন বলতে আমরা বুঝি কিভাবে ফর্সা ঝকঝকে মসৃণ ত্বক পাবো । আর এজন্য ব্যাবহার করি অনেক ক্ষতিকর প্রসাধনী যা আমাদের হরমোনাল ইমব্যালেন্স থেকে শুরু করে ত্বকের নানান সমস্যার সৃষ্টি করে।
তার মধ্যে :
মেছটা
ছোট ছোট তিল
পিগেন্টেশন বা ত্বকের অসমান কালচে ভাব
ত্বকের রিঙ্কেল এবং বয়সের ছাপ
পরিশেষে স্কিন ক্যান্সার র আশঙ্কা।

এগুলো র সবগুলো র শুরু ত্বকের যথাযথ প্রটেকশন র অভাব।
আমাদের স্কিন বা ত্বক বয়স বাড়ার সাথে অনেক পরিবর্তনে র মধ্যে দিয়ে যায় । আর আমাদের দৈনন্দিন জীবযাপন এ নিয়ম এবং যত্নের অভাবে বিভিন্ন সমস্যা আমাদের ত্বকে দেখা দেয় সর্বপ্রথম।
তাই কিছু বেসিক চর্চার মাধ্যমে আমরা বয়স কে থামাতে পারবোনা কিন্তু লক্ষণ গুলো কমাতে পারবো।
ত্বকের যত্নে বেসিক কিছু র মধ্যে অন্যতম হলো প্রটেকশন।
আর তার জন্যে সানস্ক্রিন র বিকল্প কিছু নেই।

কেনো এবং কিভাবে সানস্ক্রিন কাজ করে?

সাধারণত সূর্যের দুই প্রকার রশ্মি আছে। ইউভিএ আর ইউভিবি। এই দুই প্রকার অতিবেগুনি রশ্মির মধ্যে প্রথমটি হল লং ওয়েভ বা দীর্ঘ তরঙ্গ এবং অপরটি শর্ট ওয়েভ বা ক্ষুদ্র তরঙ্গ। ত্বকের ক্যান্সার ও পোড়া ভাবের জন্য দায়ী হল ইউভিবি। এতদিন ত্বক বিশেষজ্ঞরা জানতেন, ইউভিএ ত্বকের খুব গভীরে দ্রুত প্রবেশ করে এবং ত্বকে বলিরেখা তৈরি করে এজিং প্রসেসকে ত্বরান্বিত করে। সম্প্রতি এই ধারণা ভুল প্রমাণিত হয়েছে। এখন বলা হচ্ছে, ইউভিএ এবং ইউভিবি দুটো রশ্মিই ক্যান্সারসহ ত্বকের অন্য সমস্যার জন্য দায়ী। সুতরাং সানস্ক্রিন কেনার সময় অবশ্যই মাথায় রাখবেন, যে সানস্ক্রিন আপনি কিনছেন, সেটি শুধুই ইউভিবি থেকে ত্বককে রক্ষা করে, নাকি ইউভিএ ও ইউভিবি, দুটো থেকেই সমান সুরক্ষা দেয়।

ফিজিক্যাল এবং কেমিক্যাল সানস্ক্রিন

এদুটির মধ্যে প্রধান পার্থক্য হলো উপাদান অনুযায়ী।
ফিজিক্যাল সানস্ক্রিন এ মূলত থাকে টাইটানিয়াম অক্সাইড অথবা জিঙ্ক অক্সাইড যা একটা ভারী আস্তরণ হিসেবে কাজ করে সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে ত্বক কে রক্ষা করে।
আর কেমিক্যাল সানস্ক্রিন একটু হালকা হয় এবং একাধিকবার অ্যাপ্লাই করতে হয় এবং দামে সাধ্যের মধ্যে হয়।

দুটো ক্ষেত্রে একধিকবার ব্যাবহার র কথা মনে রাখা উচিত কারণ আমাদের ত্বক ঘেমে গেলে এবং পানির সংস্পর্শে সানস্ক্রিন র কার্যকারিতা কমে যায়।

SPF 50 অথবা SPF 70?

এটা সম্পর্কে আমাদের অনেকেরই তেমন ধারণা নেই।
মূল ব্যাপার হলো সানস্ক্রিন আমাদের ত্বক কে সূর্যের ক্ষতিকর রশ্মি থেকে প্রোটেক্ট করে। তো যদি আমরা SPF 15 ব্যাবহার করি তা আমাদের ত্বক কে 15 মিনিটস পর্যন্ত রক্ষা করে।
আমাদের আবহাওয়া তে আদ্রতা অনেক বেশি তার কারণে ঘাম ও বেশি হয়। তাই কমপক্ষে দুইবার সানস্ক্রিন ব্যাবহার করা উচিত।
অতিরিক্ত সময় বাইরে থাকলে, সমুদ্রে র পানি র সংস্পর্শে আসলে আবার ব্যাবহার করতে হবে।
বিশেষ করে সমুদ্রে গোসল করার পর ত্বক এ যে কালচে ভাব আসে তার জন্য সানস্ক্রিন যথেষ্ট নয়। কিন্তু ত্বকের ক্ষতি র হাত থেকে রেহায় পাওয়া যায়।
আমাদের আবহাওয়াই SPF 70 যথেষ্ট । এরবেশি তেমন কোনো কার্যকরী ভূমিকা রাখে না।

ফিজিক্যাল অথবা কেমিক্যাল?

যদি বাজেট চিন্তা করেন কেমিক্যাল বেশি পাওয়া যায় মার্কেট এ।
আর ফিজিক্যাল সানস্ক্রিন র প্রাইস একটু বেশি।
তবে সবচয়ে ইম্পর্ট্যান্ট সানস্ক্রিন র ব্যাবহার।
আর মনে রাখতে হবে আমাদের আবহাওয়াই যেটাই ব্যাবহার করা হোক একের অধিক ব্যাবহার করতে হবে।
: বাইরে যাওয়ার আগে।
: সারাদিন বাইরে থাকলে ঘাম অথবা পানির সংস্পর্শে আসলে।
: বাসায় থাকলে চুলার আগুনের কাছে আসার আগে।
: অ্যালোভেরা এবং ভিটামিন সি সমৃদ্ধ প্রোডাক্ট ত্বকে দিয়ে কখনো সরাসরি রোদে যাওয়া উচিত নয়। এটা ত্বক এ পোড়া ভাব সৃষ্টি করে।

তাই বলে কি সূর্যের আলো একদমই লাগবোনা?

সকাল 10 টার মধ্যে অবশ্যই সূর্যের আলো পরিবারের সবাই কে নিয়ে উপভোগ করতে হবে । নাহলে ভিটামিন ড র অভাবে আমাদের বিভিন্ন সমস্যা হয়। বিশেষ করে শিশুদের।

তাই নিরাপদে থাকুন আর সুস্থ দেহে উপভোগ করুন প্রকৃতিকে।

0
    0
    Your Cart
    Your cart is emptyReturn to Shop
    preloader

    Delivery

    Delivery charge inside Dhaka: BDT 60.00 Delivery charge Dhaka Suburb : BDT 80.00 Delivery charge outside Dhaka: BDT 120.00 (Due to Covid 19 delivery charge revised and may vary in some cases.)

    Return

    Please check our return and logistic policies in the footer. For any issue please call our customer service Call Center : 09606102102 WhatApp: 01918391888